মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্যের পরও এগিয়ে ট্রাম্প

Donald Trump_The Dhaka Reportইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম।।

মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি তুলে ব্যাপক সমালোচিত হওয়ার পরও মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে এগিয়ে আছেন ধনকুবের ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্পের ওই মন্তব্যের পর জরিপ সংস্থা ইপসোস ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স পরিচালিত প্রথম জাতীয় জরিপের ফলাফলে এ ধারণা পাওয়া গেছে। শুক্রবার জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রিপাবলিকান পার্টির ভোটারদের ৩৫ শতাংশের সমর্থন পেয়ে ট্রাম্প সবার চেয়ে এগিয়ে আছেন।

ক্যালিফোর্নিয়ায় নির্বিচার গুলিবর্ষণের প্রেক্ষাপটে গেল সোমবার ট্রাম্প বলেছিলেন, ছাত্র ও অন্যান্য ভ্রমণকারীসহ মুসলিম অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা উচিত।

ক্যালিফোর্নিয়ায় ওই গুলিবর্ষণে ১৪ জন নিহত হন। গুলিবর্ষণের জন্য এক মুসলিম দম্পতিকে দায়ী করা হয়।নিহত ওই দম্পতিকে নিজেদের অনুসারী বলে দাবি করে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

জরিপে অংশগ্রহকারী বেশিরভাগ রিপাবলিকান ভোটার জানিয়েছেন, ট্রাম্পের মন্তব্য নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন নন। তবে এ মন্তব্যের কারণে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সুযোগ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে মতামত প্রকাশ করেছেন তাদের কেউ কেউ।

জরিপে অংশগ্রহণকারী রিপাবলিকানদের ৬৪ শতাংশ ট্রাম্পের মন্তব্যকে আক্রমণাত্মক বলে মনে করেন না। অপরদিকে ২৯ শতাংশ মন্তব্যটিকে আক্রমণাত্মক বলে মনে করেন।

৫৭ বছর বয়সী রিপাবলিকান ডোন্না ফি বলেন, “প্রত্যেকে যা অনুভব করছে তিনি সত্যি তাই বলেছেন।”

মিজৌরির এই ভোটার জানান, তিনি ট্রাম্পকে সমর্থন করেন এবং মুসলিমদের বিষয়ে ট্রাম্পের প্রস্তাবের সঙ্গে একমত।

ট্রাম্পের ‘স্পষ্টবাদী’ মন্তব্যে অন্যান্য ভোটাররা তার প্রতি বিরূপ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন ফি।

ট্রাম্পের মন্তব্য ভোটারদের মধ্যে যে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে জরিপে তাও উঠে এসেছে। সাধারণ ভোটারদের ৪৭ শতাংশ জানান, ট্রাম্পের মন্তব্যে মর্মাহত হয়েছেন তারা।

অপরদিকে ডেমোক্রেট সমর্থকদের ৭২ শতাংশ ট্রাম্পের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বলে জানান।

রিপাবলিকান সমর্থকদের ১২ শতাংশের সমর্থন নিয়ে দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন অবসরপ্রাপ্ত নিউরোসার্জন বেন কার্সন, আর ১০ শতাংশ সমর্থন নিয়ে যৌথভাবে তৃতীয় অবস্থানে আছে টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ ও ফ্লোরিডার সাবেক গভর্নর জেব বুশ।

বিষয়বস্তু:
Share.

Leave A Reply