২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪|২৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯|১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭|বুধবার, রাত ১২:১০

আরও ৬ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন

নিউজ ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম।।

নতুন করে আরও ছয়টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এ নিয়ে দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়াল ৯১টিতে।

বিদ্যমান বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অধিকাংশের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার শর্ত ভঙ্গের অভিযোগ আছে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই নতুন বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের অনুমোদন দেওয়া হলো।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হেলালউদ্দিন বলেন, কয়েক দিন আগে এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানিয়েছেন, নতুন অনুমোদন পাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পেছনে সরকারি দলের নেতা ও মন্ত্রীরা রয়েছেন। অনুমোদন পাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ঢাকায় দুটি এবং চট্টগ্রাম, খুলনা, কুষ্টিয়া ও মানিকগঞ্জে একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে।

ঢাকায় অনুমোদন পাওয়া দ্য ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব স্কলার্স-এর উদ্যোক্তা জামিল হাবিব নামের এক ব্যক্তি। এর ঠিকানা বাড্ডার প্রগতি সরণিতে। অপর বিশ্ববিদ্যালয়টি হলো কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। এর উদ্যোক্তা চৌধুরী নাসির সরাফত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানা দেওয়া হয়েছে ৩৮৭, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল।

রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের  ট্রাস্ট্রি বোর্ডে রয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও তাঁর স্ত্রী।

মানিকগঞ্জে অনুমোদন পাওয়া এনপিআই ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উদ্যোক্তা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না ও মুহাম্মদ শামসুর রহমান।

চট্টগ্রামে অনুমোদন পেয়েছে ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি, চিটাগাং। চট্টগ্রামের চান্দগাঁওয়ের এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা মুহাম্মদ ওসমান। এ ছাড়া খুলনায় অনুমোদন পেয়েছে নর্দান ইউনিভার্সিটি। ঢাকায় অবস্থিত নর্দান ইউনিভার্সিটির শাখা ক্যাম্পাস ছিল খুলনায়। সেটিই এখন বিশ্ববিদ্যালয় হবে। এর মালিকানায় আছেন বর্তমান নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের মালিকেরাই।

কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের সাবেক ডিন জহিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, তাঁরা একটি সত্যিকার বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে চান। তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রি বোর্ডে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও তাঁর স্ত্রী রয়েছেন।

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠকে শিক্ষাবিদেরা ঢাকায় আর কোনো বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন না দেওয়ার অনুরোধ জানান। কিন্তু সেই অনুরোধ রক্ষা করা হয়নি। তা ছাড়া সরকারের নীতি ছিল, যেসব জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় নেই সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের অনুমোদন দেওয়া। কিন্তু এবার অনুমোদন পাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে কেবল একটি স্থাপিত হচ্ছে মানিকগঞ্জে। এই জেলায় কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই। অন্য জেলায় সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। সূত্র: প্রথম আলো।

Share.

Leave A Reply