৪ কার্তিক, ১৪২৪|২৭ মুহাররম, ১৪৩৯|১৯ অক্টোবর, ২০১৭|বৃহস্পতিবার, রাত ১২:০৯

মালয়েশিয়ায় ইসলামি আইন চালুর প্রস্তাব

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

মালয়েশিয়ায় ইসলামি দণ্ডবিধি ব্যবস্থা চালুর জন্য দেশটির পার্লামেন্টে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে। গত সপ্তাহে প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন মালয়েশিয়ার প্রধান বিরোধী দল প্যান মালয়েশিয়ান ইসলামিক পার্টির প্রেসিডেন্ট আবদুল হাদি আওয়াং।

এদিকে বিরোধী দলের আনা এ বিলে সমর্থন দিয়েছে মালয়েশিয়ার ক্ষমতাসীন দল ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (উমনো)।

আগামী অক্টোবরে বিলটি নিয়ে পার্লামেন্টে বিতর্ক হতে পারে বলে খবরে বলা হয়েছে। এটি পাস হলে মালয়েশিয়ার বর্তমান শরিয়া আদালতের আর প্রয়োজন হবে না।

ইসলামি দণ্ডবিধিকে ইসলামের পরিভষায় ‘হুদুদ’ বলা হয়। প্রস্তাবিত আইনে রয়েছে হুদুদ।

মালয়েশিয়ার বর্তমান ক্ষমতাসীন জোটের অন্য দলগুলো অবশ্য এই বিলের সমালোচনা করছেন। এতে মালয়েশিয়ার মতো বহুজাতিক দেশে তিক্ততা আরও বাড়তে পারে বলে বিরোধীরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক এক সংবাদ সম্মেলনে সমালোচকদের জবাবে বলেন, কেবল কিছু অপরাধের শাস্তি বাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এটা শরিয়া আদালতে শুধু মুসলমানদের ওপর প্রয়োগ করা হবে। এ নিয়ে সমালোচকরা না বুঝে সমালোচনা করছে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ দেশটির বেশিরভাগ রাজ্য শরিয়া আইন বাস্তবায়ন করতে চাইলেও ফেডারেল আইনে তা সিদ্ধ নয়। তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে মালয়েশিয়ার পার্লামেন্টে হুদুদ বিলটি পাশ হবে না। কারণ, হুদুদ আইন পাস করে আইনে পরিণত করতে দুই-তৃতীয়াংশ এমপির সমর্থন দরকার। তা উমনোর নেতৃত্বাধীন জোটের নেই।

আরও পড়তে পারেন:

বাংলাদেশে শরিয়া আইন চান ৮২ ভাগ মুসলমান

জাম্বিয়াকে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ঘোষণা

স্বামীর নামে নামকরণ কি ইসলামসম্মত?

বিভিন্ন নফল নামাজের পরিচয় ও ফজিলত

Share.

Leave A Reply