কি শুরু করেছে ফেসবুক?

নিউজ ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

ফেসবুক যা শুরু করেছে তাতে ব্যবহারকারীরা বিরক্তই হচ্ছেন। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেই তারা অভিযোগ করছেন, ফেসবুক তাদের ওপর রীতিমতো জোর জবরদস্তি শুরু করেছে। কয়েকদিন আগে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছে ফেসবুকের সব সুবিধা একসঙ্গে পাওয়া যাবে না। মেসেঞ্জার অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারে বাধ্য করছে ফেসবুক। এবারে জানা গেল, ফেসবুকের ছবি আপলোড সুবিধাটি পেতে মোমেন্ট ব্যবহারেও বাধ্য করবে ফেসবুক।

সম্প্রতি কয়েকজন ব্যবহারকারী ফেসবুকের কাছ থেকে মোমেন্ট ব্যবহারের নোটিফিকেশন পেয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। ফেসবুকের নোটিফিকেশনে সতর্ক করে বলা হয়েছে, যদি মোমেন্ট অ্যাপ ডাউনলোড করে ইনস্টল করা না হয় তবে সব ছবি মুছে দেবে ফেসবুক।

ফেসবুকের এই সতর্কবার্তা কাজে এসেছে। অ্যাপ স্টোরে মোমেন্ট অ্যাপটি সবচেয়ে ডাউনলোড হওয়া অ্যাপের শীর্ষে চলে এসেছে। এর আগে একই ভাবে মেসেঞ্জার ব্যবহারে বাধ্য করায় বর্তমানে মেসেঞ্জার ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৯০ কোটি ছাড়িয়েছে। বর্তমানে ফেসবুক ব্যবহারকারী ১৬৫ কোটি।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, ফেসবুকের এই বাধ্য করার নীতি ফেসবুকের ওপর মানুষের আস্থা কমিয়ে দিতে পারে। ব্যবহারকারীদের রাগিয়ে দেওয়া ছাড়াও ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মনে ভয় ধরিয়ে দিয়েছে। অনেকেই আশঙ্কা করছে ফেসবুকে ডাউনলোড করা সব ছবি এখন মুছে যাওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট টেক ক্রাঞ্চের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৭ জুলাই পর্যন্ত মোমেন্ট অ্যাপটি ডাউনলোড করার সুযোগ রেখেছে ফেসবুক তা না হলে সিনক্রোনাইজ করা ছবিগুলো মুছে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে। সমস্যা হচ্ছে, কবে ফোন থেকে ফেসবুকে ছবি সিনক্রোনাইজ হয়েছে তা অনেকের খেয়াল নেই। ফেসবুক অ্যালবামে গিয়ে এ ধরনের ছবিগুলো শনাক্ত করা যায়। ফেসবুক অ্যাপের মধ্যে সিনক্রোনাইজ হওয়া ছবিগুলো ‘সিঙ্কড’ নামে এবং ওয়েবে ‘সিঙ্কড ফ্রম ফোন’ নামে সংরক্ষিত থাকবে। যদি এ ছবিগুলো গুরুত্বপূর্ণ মনে হয় তবে তা জিপ ফাইল আকারে কম্পিউটারে ডাউনলোড করে রাখা যাবে অথবা ফেসবুকের চাহিদামতো মোমেন্ট অ্যাপটি ফোনে ইনস্টল করে ফেলতে হবে।

Share.

Leave A Reply