লহ্মীপুরের অাওয়ামী রাজনীতির প্রাণপুরুষ অ্যাড. নয়ন

মো. মোশাররফ পাটওয়ারী:

শ্রদ্ধেয় প্রিয় ভাবী মিসেস লুবনা চৌধুরীকে ফোন করতেই কথায় ক্লান্তির চাপ। বললেন পারিবারিক কাজে ভীষণ ব্যস্ত…। জামাই কানাডা থেকে এসেছে। এছাড়াও সাংসারিক বড় ধরনের একটা দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। বললাম নয়ন ভাই নেই উনাকে বলেননি?

ভাবী বললেন, নয়ন ভাইকে বলার পর উনি জবাব দিয়েছেন, অামি অাওয়ামী লীগ করি, সংসার করি না।

মনে হলো, নয়ন ভাই আসলেই ঠিক কথা বলেছেন। সত্যিই তো তিনি অাওয়ামী লীগই করেন। দীর্ঘ ৩৫ বছর বছর সংগ্রাম করে, স্কুল ছাত্রলীগের সভাপতি দিয়ে যে রাজনৈতিক নয়নের প্রস্ফুটিত হওয়া শুরু; সেই নয়নের অালো অারো উজ্জ্বল হয়ে অাজ লহ্মীপুর জেলা অাওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন।

নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন 06_The Dhaka Report

মাঝে অালো ছড়িয়েছেন পৌর, থানা, কলেজ, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে। তারপর রাজনীতির অাকাশে অনেক মেঘ নেমে এলেও অসীম ধৈর্য অার অসাধারণ সাংগঠনিক দক্ষতায় মেঘে ঢেকে না গিয়ে ঠিকই অালো ছড়িয়েছেন। হাল ধরেছেন পৌর ও সদর উপজেলা অাওয়ামী লীগের। সাধারণ সম্পাদকের সাফল্য দিয়ে পরবর্তীতে সভাপতি।

অাজ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হয়ে লহ্মীপুর অাওয়ামী লীগে সৃষ্টি করছেন গণজোয়ার। যে জোয়ারে চার পৌরসভা অার ৪৫ ইউনিয়নের সব নৌকার মাঝিরা অাজ পৌর ভবন অার ইউনিয়ন পরিষদের সবচেয়ে বড় চেয়ারে। প্রায় সব কাউন্সিলর আর মেম্বাররাও বিজয়ের মিছিলে।

Mosharraf Patwary 06_The Dhaka Report

অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন নতুন করে প্রাণ দিয়েছেন সহযোগী সংগঠনগুলোর। বিশেষ করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ অাজ জেলার অন্যতম বৃহৎ শক্তি। ছাত্রলীগ সারাদেশের ৬৪ জেলার সেরা ইউনিট। যুবলীগও সে পথে।

শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, তাঁতী লীগের সাফল্য মনে করিয়ে দেয় দুর্বল সন্তানও সঠিক গার্ডিয়ান পেলে এগিয়ে যায়। মহিলা অাওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগও আজ সাফল্যের স্বপ্ন দেখছে।

এই নুর ছড়িয়ে পড়ছে আদালত প্রাঙ্গনে। নির্যাতিত দলীয় কর্মীর হাতের শিকলে, কখনো নিজে দাঁড়িয়ে, কখনোবা অন্যভাবে মুক্ত করছেন প্রিয় মুজিবপ্রেমিকদের। আইনজীবি সমিতি তাদের স্বার্থ রক্ষায় নির্ভর করেছেন এই ক্যারিশমাটিক নেতার ওপর। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তাকে বানিয়েছেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক।

নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন_The Dhaka Report

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করে খেলার মাঠগুলোকে ভাসাচ্ছেন চার ছক্কা আর গোলের বন্যায়। তৈরি করছেন তরুণ কয়েকজন ক্রীড়া সংগঠক আর সম্ভাবনাময় বেশকিছু খেলোয়াড়।

ঝড় বৃষ্টিকে উপেক্ষো করে লহ্মীপুরের অলহ্মী দূর করতে ছুটে বেড়াচ্ছেন জেলার অানাচে কানাচে। নতুন কর্মী সৃষ্টিতে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, থানা কোনও ইউনিটই তার বিচরণের বাইরে নয়। সামাজিক অনুষ্ঠানসহ যেকোনো অনুষ্ঠানে ক্লান্তিহীন উপস্থিতি দিয়ে স্থান করে নিয়েছেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার হৃদয়ে।

ঘরে ঘরে শিক্ষার অালো জ্বালাতে প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত করেছেন বেশকিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। নিজ এলাকা চররুহিতায় দাদার নামে হাইস্কুল, মাদ্রাসা সৃষ্টি করে চরের নিরীহ, গরিব মানুষের সন্তানদের আজ দেখাচ্ছেন সুশিক্ষিত হওয়ার স্বপ্ন।

নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন এবং মোশাররফ পাটওয়ারী

হতদরিদ্র, বিপদগ্রস্ত মানুষকে অার্থিকসহ বিভিন্নভাবে সাহায্য করে হয়ে উঠছেন সাধারণ মানুষের অাশ্রয়স্থল। জেলার দায়িত্বের দেড় বছরে বিশাল বিশাল অায়োজনে মাননীয় মন্ত্রীদের উপস্থিতিতে কয়েকটি জনসভা, জাতীয় দিবস, শোক দিবস, ইফতার মাহফিল, বর্ধিত সভা, অন্যান্য অনুষ্ঠানের সফল আয়োজন প্রমাণ করে একজন দক্ষ সংগঠকের ওপর জননেত্রী আস্থা রেখেছেন।

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস নির্মূলে জেলাব্যাপী ১৪ দলের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করে, সব শ্রেণি পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে তিনি পরিণত হয়েছেন সরকারের সামগ্রিক উন্নয়ন কার্যক্রমের দুই নয়নে।

রায়পুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম শাহজাহান চৌধুরীর কন্যা, ত্যাগী সহধর্মিনী রুবিনা ইয়াসমিন চৌধুরী লুবনার ওপর নির্ভর করে পরিবার, সংসার, স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে সব ভুলে, সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত যিনি দলের প্রাণ হয়ে ”নুর- নয়ন” নামকে স্বার্থক করে তোলেন…। তিনিই লহ্মীপুরের লাখো মানুষের স্বপ্নের অাগামী………….। তিনিই লহ্মীপুরের আওয়ামী রাজনীতির প্রাণপুরুষ।

লেখক: ১ম যুগ্ন আহ্বায়ক, ১৪ দলীয় জোট, চন্দ্রগঞ্জ থানা, লহ্মীপুর

বিভাগ:কলাম
Share.

Leave A Reply