সিরিয়ায় নিজেদের দখল বাড়াবে তুর্কি সমর্থিত বিদ্রোহীরা: এরদোয়ান

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে নিজেদের দখলে থাকা এলাকা আরও বাড়াবে তুর্কি-সমর্থিত বিদ্রোহীরা। জঙ্গি সংগঠন দায়েশ বা আইএস-এর নিয়ন্ত্রণে থাকা আল-বাব শহরের দখল নিতে আরও দক্ষিণের দিকে অগ্রসর হওয়ার কথা জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান।

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ সোমবার নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিতে দেশ ছাড়ার আগে বিমানবন্দরে এক সংবাদ সম্মেলনে এরদোয়ান বলেন, ওই অঞ্চলে তুরস্কের ‘নিরাপদ অঞ্চল’ পাঁচ হাজার স্কয়ার কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে।

গত মাসে তুরস্ক সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে আইএস জঙ্গি এবং কুর্দি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ‘ইউফ্রেটিস শিল্ড’ নামক একটি অভিযান শুরু করে।

এরদোয়ান বলেন, “ইউফ্রেটিস শিল্ড অভিযানের আওতায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৯০০ কিলোমিটার এলাকা মুক্ত করা হয়েছে। দখল বাড়ানোর জন্য আরও দক্ষিণে অগ্রসর হচ্ছে আমাদের বাহিনী। আমরা প্রায় পাঁচ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ গড়তে পারি।”

তুরস্ক আগে থেকেই নিজেদের সিরীয় সীমান্তে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ বা ‘নো-ফ্লাই জোন’ গঠনের দাবি জানিয়ে আসছে।

এরদোয়ান জানান, ফ্রি সিরিয়ান আর্মি নামের তুর্কি-সমর্থিত বিদ্রোহীরা এখন আইএস-এর বিরুদ্ধে আল-বাব শহরে যুদ্ধ করছে।

তিনি আরও বলেন, ‘জারাব্লুস এবং আল-রাই শহর দখলের পর এখন আমরা আল-বাবের দিকে এগুচ্ছি। আমরা সেখানে গিয়ে আমাদের হুমকি আইএস-কে দমন করবো।’

উল্লেখ্য, সিরিয়ায় ২০১১ সালের মার্চ থেকে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে প্রায় চার লাখ মানুষ নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঘরহারা হয়েছেন ১০ লাখেরও বেশি মানুষ। প্রতিবেশী দেশ তুরস্কে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছেন ৩০ লাখেরও বেশি সিরীয় নাগরিক।

Share.

Leave A Reply