গুরুত্বপূর্ণ কাজ সহজে সম্পাদনের আমল

ইসলাম ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

আল্লাহ তাআলা বান্দাকে তাঁর সুন্দর সুন্দর নামের জিকির বা আমল করার কথা বলেছেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাদিসে আলাদা আলাদাভাবে এ নামের জিকিরের আমল ঘোষণা করেছেন। আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নামসমূহের মধ্যে (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’ একটি। যার অর্থ হলো ‘অত্যন্ত ক্ষমতাধর অর্থাৎ তাঁর সম্মুখে সবই অক্ষম।’

সংক্ষেপে এ গুণবাচক নাম (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’-এর জিকিরের আমল ও ফজিলত তুলে ধরা হলো-

উচ্চারণ : আল-ক্বাহ্‌হারু

অর্থ : ‘অত্যন্ত ক্ষমতাধর অর্থাৎ তাঁর সম্মুখে সবই অক্ষম।’

ফজিলত

>> যে ব্যক্তি এ পবিত্র গুণবাচক (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’ নামটির জিকির বেশি বেশি করবে, তার অন্তর থেকে আল্লাহ তাআলা দুনিয়ার ভালোবাসা দূর করে দেবেন এবং তার শেষ পরিণাম হবে অত্যন্ত ভালো।

>> যে ব্যক্তি তার গুরুত্বপূর্ণ কাজে এ পবিত্র গুণবাচক (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’ নামটির জিকির ১০০ বার করবে, তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজটি অত্যন্ত সহজ হয়ে যাবে।

>> যে ব্যক্তি ফরজ, সুন্নাত ও নফল নামাজের পর মধ্যে এ পবিত্র গুণবাচক (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’ নামটির জিকির করবে, তবে তার বড় বড় দুশমনও পরাস্ত হয়ে যাবে।

>> যে ব্যক্তি প্রতিদিন ১০০ বার আল্লাহ তাআলার পবিত্র গুণবাচক (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’-এর জিকির করবে; আল্লাহ তাআলা ঐ ব্যক্তির সমস্ত বিপদ ও সমস্যা দূর করে দিবেন।

>> যে ব্যক্তি এ পবিত্র গুণবাচক (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’ নামটির জিকির সব সময় করবে; সে ব্যক্তির অন্তর থেকে দুনিয়ার সংসারের মায়া-মমতা দূর হবে; আল্লাহ ব্যতিত অন্য কোনো খেয়াল থাকবে না এবং শত্রুর উপর বিজয় লাভ করবে।

পরিশেষে…

মুসলিম উম্মাহর উচিত আল্লাহ তাআলার নিকট ক্ষমা লাভ এবং দুশমনের আক্রমণ থেকে হিফাজত থাকতে বেশি বেশি এ গুণবাচক নামের জিকির করা। আল্লাহ তাআলা সবাইকে এ পবিত্র নাম (اَلْقَهَّارُ) ‘আল-ক্বাহ্‌হারু’-এর আমল করার তাওফিক দান করুন এবং ক্ষমা লাভকারীদের দলে অন্তর্ভূক্ত করুন। আমিন। কার্টিসি: জাগো নিউজ।

Share.

Leave A Reply