৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪|৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯|২২ নভেম্বর, ২০১৭|বুধবার, বিকাল ৪:৫৫

মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ‘ছাত্রলীগের’ ভাঙচুর

নিউজ ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

গাজীপুর মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। সংগঠনের নেতাকর্মীরা এর জন্য ছাত্রলীগকে দায়ী করেছেন। ২৯ অক্টোবর ২০১৬ শনিবার শহরের বঙ্গতাজ মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্ব পণ্ড হয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, সকাল ১০টার দিকে সংগঠনের সম্মেলন শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বিকেল ৩টার দিকে সম্মেলনের প্রথম পর্ব শেষ হয়। পরে দুপুরের খাবারের বিরতি দেওয়া হয়। বিকেল ৪টার দিকে দ্বিতীয় পর্বে কমিটি ঘোষণা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরুর কথা। এর জন্য মঞ্চের প্রস্তুতি পর্ব চলছিল। এ সময় মঞ্চে অবস্থান করা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মঞ্চ খালি করার কথা বলা হয়। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মঞ্চত্যাগ করে। এর কিছু সময় পর ছাত্রলীগের একদল উচ্ছৃঙ্খল কর্মী মিলনায়তনে ঢুকে চেয়ার, টেবিল, লাইট, ফ্যান, ব্যানার, ফেস্টুন ভাঙচুর করে। এ সময় পুরো মিলনায়তনে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করতে থাকেন। অনেকে আতঙ্কে সম্মেলনস্থল ত্যাগ করে রাস্তায় গিয়ে অবস্থান নেন। খবর পেয়ে জয়দেবপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ সময় গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খান, সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।

এ ব্যাপারে মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক কামরুন নেছা মান্নান জানান, প্রথম অধিবেশনের পর মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন কমিটি ঘোষণার কথা ছিল। কারো পক্ষে প্রভাবিত হয়ে এ কমিটি ঘোষণা বানচাল করার জন্য এ ঘটনা ঘটানো হতে পারে। তিনি আরো জানান, এখন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী মহিলা লীগের কোনো কমিটি নেই। ঢাকায় ফিরে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এ ঘটনার জন্য ছাত্রলীগকেই দায়ী করেন তিনি।

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার রেজাউল হাসান রেজা জানান, সম্মেলনে হামলাকারীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম অভিযান চালাচ্ছে।

গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি আমীর হোসেন জানান, ছাত্রলীগের গাজীপুর মহানগরী শাখার সভাপতি মাসুদ রানা এরশাদের বাসায় তল্লাশি করা হয়েছে। তবে এরশাদকে পাওয়া যায়নি।

সকালের অধিবেশনে মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সেলিনা ইউনুসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খান ও সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম, মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসমিন হোসেন, দপ্তর সম্পাদক কামরুন নেছা মান্নান, সদস্য বনশ্রী বিশ্বাস স্মৃতিকণা প্রমুখ। সম্মেলন উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আশরাফুন নেছা মোশাররফ। সম্মেলনের প্রধান বক্তা ছিলেন মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আসমা জেরিন ঝুমু। কার্টিসি: এনটিভি।

Share.

Leave A Reply