১০ ফাল্গুন, ১৪২৪|৫ জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯|২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮|বৃহস্পতিবার, রাত ৮:৪৬

প্রাণ মিলছে প্রাণের বইমেলায়

ফিচার ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম:

বইমেলার দ্বিতীয় দিন। সন্ধ্যায় বান্ধবীদের নিয়ে ঘুরতে এসেছেন খাদিজা সুলতান। আজ (বৃহস্পতিবার) বই কিনবেন না বলেই পণ করে বেরিয়েছিলেন তিনি। তবে মেলায় এসে পণ ভাঙতে হয়েছে তার। কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের লেখা ‘হলুদ হিমু কালো র‌্যাব’ নামের চারটি বই কিনেছেন খাদিজা। ছুটিতে বাড়ি গিয়ে চার অনুজকে প্রিয় লেখকের বই উপহার দেবেন তিনি।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আগামী প্রকাশনীর সামনে দাঁড়িয়ে কথা হয় খাদিজার সঙ্গে। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষ হওয়ার পথে। প্রতিবারই মেলায় আসি আনন্দ নিয়ে। জানি না পরের বার আসতে পারব কিনা? মন খারাপ হচ্ছে। এ মেলা তো প্রাণের মেলা। বইমেলা মানেই সৃজনশীল মানুষের সমাবেশ। প্রথম দিনই আসতাম। উদ্বোধনের কারণে বাড়াবাড়ি রকমের নিরাপত্তা ছিল বলে আসিনি। আজ (২ ফেব্রুয়ারি) বান্ধবীদের নিয়ে এসেছি।

খাদিজার মতো অনেকেই এসেছেন মেলায় ঘুরতে। অনেকেই এসেছেন বই ও বইয়ের দাম যাচাই করতে। শুরু হওয়ার প্রথম দিন তেমন জমে না উঠলেও দ্বিতীয় দিন পাঠক, দর্শকের পদচারণায় প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।

রাজধানীর রায়েরবাজার থেকে মেলায় এসেছেন মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, কলেজ বন্ধুদের নিয়ে ঘুরতে এসেছি। গত বছরও এসেছিলাম। এবার বেশ কয়েকটি বই কিনব বলে টাকাও জমিয়েছি। আজ এসেছি মেলা দেখতে। বই কিনব পরে।

মেলায় কথা হয় হাসান নামের আরেক দর্শনার্থীর সঙ্গে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স করছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে রোজ পড়তে যান চাকরির প্রস্তুতি নিতে। তিনি বলেন, মেলায় আসার মজাই আলাদা। মাসের প্রায় দিনই আসব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Share.

Leave A Reply