মুক্তি কোথায় হে?

সাদিয়া বিনতে শাহজাহান: কিছু কিছু মেয়ের এই ঈদের কসমেটিকসেই বাজেট পড়ে যায় ছয় থেকে সাত হাজার টাকা। অথচ কতো পরিবার ঈদে নতুন কিছু নিতে কেবল ৫০০ টাকার জন্য হাপিত্যেস করে। হায়রে জীবন!

শুকনো মুখগুলোর দিকে তাকালে মেকআপের প্রতি কিংবা জামা কাপড়ের প্রতি লোভগুলো ঘৃণায় পরিণত হয়। কি ভেবে কসমেটিক কিংবা জামা কাপড় কেনাকাটায় ওরা এতো টাকা উড়ায় বোঝে আসে না।

বর্তমানে গার্লস কিছু গ্রুপে মেকআপে দামী দামী প্রোডাক্টের ব্যবহার দেখিয়ে মেয়েদের মনগুলো মেকি করে ফেলা হচ্ছে। সেদিন এক মেয়ের ভিডিও টিউটোরিয়ালের একটা প্রোডাক্ট আগ্রহবশত খুঁজতে গিয়ে জানতে পারলাম দাম ৫০০০ টাকা। আমার তো চোখ কপালে! কি বলে? এই টাকা কি এতোই সোজা?

বর্তমানে মেয়েদের ওই গার্লস গ্রুপগুলো মিলে কিছু গেট টুগেদার প্রোগ্রাম করে। যেগুলোর বাজেট থাকে অনেক বেশি। অথচ চাইলে এই টাকাগুলো দিয়ে কতো কতো বঞ্চিতদের কাজে লাগানো যেতো। সমাজের ভালো কোনো কাজে তাদের বাড়তি সময় ও টাকাগুলো লাগিয়ে কতো ভালো কিছুর সূচনা করা যেতো। কিন্তু কে করবে?

আজকের এই ভোগ্য সমাজ আমাদের শিখিয়েছে অর্থের অপচয়ে সহজ এন্টারটেইনমেন্ট! দোষটা মানুষগুলোর নাকি চলমান ব্যবস্থার? মস্তিষ্কের বিকৃতির প্রতিফলন এখন পথে পথে। এই সমাজের হারিয়ে যাওয়া পথ বাতলে দেওয়ার পথিক! কতো দূরে তোমার বাস?

Share.

Leave A Reply