একটি গান যেভাবে বদলে দিয়েছে একটি দেশের ভাগ্য!

বিনোদন ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: একটি গান বদলে দিতে পারে একটি দেশের চিত্র। সম্প্রতি সাড়া জাগানো স্প্যানিশ গান ‘দেসপাসিতো’ এর প্রমাণ। দেউলিয়া হওয়ার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাওয়া দেশ পুয়ের্তো রিকোর ত্রাণকর্তা হয়ে যেন এ গানের আবির্ভাব। গানটি গত কয়েক মাসে বাড়িয়ে দিয়েছে দেশটির আয়। ‘দেসপাসিতো’ দেখে এখন অনেকেই সেই দেশে ঘুরতে যাচ্ছেন। তাই পর্যটন খাতে গত দুই মাসে পুয়ের্তো রিকোর আয় বেড়েছে ৪৫ শতাংশ।

সম্প্রতি পুয়ের্তো রিকো তাদের দেশের শত কোটি ডলার ঋণের কিস্তি দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে। প্রায় মাসেই ব্যর্থ হচ্ছে ঋণের কিস্তি শোধে। এরই মধ্যে গত জানুয়ারিতে ইউটিউবে প্রকাশ পায় স্প্যানিশ গান ‘দেসপাসিতো’। গানটি গেয়েছেন পুয়ের্তো রিকান গায়ক লুইস ফনসি ও ড্যাডি ইয়াংকি। এ গানটি মুক্তির পরপরই রীতিমতো ঝড় উঠে যায় সংগীত-দুনিয়ায়।

গানটিতে দুই শিল্পীর পাশাপাশি মডেল হিসেবে দেখা যায় ২০০৬ সালে মিস ইউনিভার্স খেতাবজয়ী পুয়ের্তো রিকান মডেল সুলেকা রিভেরাকে। গানের ভিডিও চিত্র ধারণ করা হয় পুয়ের্তো রিকোর বিভিন্ন স্থানে। এর মধ্যে পর্যটকদের নজর কাড়ে ওল্ড সান জুয়ান অঞ্চলের ক্লাব লা ফ্যাক্টোরিয়া ও লা পার্লা সেক্টর। পুয়ের্তো রিকোর সংবাদমাধ্যম এল নুয়েভো দিয়াতে এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। তার একটি অংশ টুইটারে প্রকাশ করে লুইস ফনসি লেখেন, ‘কী যে আনন্দ হয়, যখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এসব দেখি, পড়ি। এই গান ও গানের ভিডিও প্রাণ পুয়ের্তো রিকো।’ টুইটের শেষে তিনি ধন্যবাদ জানান ড্যাডি ইয়াংকি ও সুলেকা রিভেরাকে।

এই ‘দেসপাসিতো’ এখন ইউটিউবে সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিওর একটি। গত জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত গানটি দেখা হয়েছে ২৫০ কোটিবারের মতো। বিলবোর্ড।

Share.

Leave A Reply