৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪|২ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯|২২ নভেম্বর, ২০১৭|বুধবার, রাত ১:৩২

মাল্টা চাষে ভাগ্য ফিরছে কৃষকদের

ন্যাশনাল ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় বাণিজ্যিকভাবে মাল্টা চাষ শুরু হয়েছে। মাল্টা চাষ করে এরই মধ্যে এলাকার কয়েকটি পরিবার আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছে। তাদের দেখে আরো অনেকে সুস্বাদু ফলটি চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। উপজেলার মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তারা জানান, এ এলাকার মাটি মাল্টা চাষের জন্য বিশেষ উপযোগী। চারা রোপণের মাত্র তিন বছরের মধ্যে ফলন পাওয়া যায়। এছাড়া এখানে উৎপাদিত মাল্টার স্বাদ ও পুষ্টিগুণ আমদানিকৃত মাল্টার প্রায় সমান।

২০১০ সালে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের পাঁচগাঁও গ্রামের কৃষক মনমথ সরকার ও আফতাব উদ্দিন দেড় একর করে মোট তিন একর জমিতে থাইল্যান্ডের বারী-১ জাতের ৫০০ মাল্টার চারা রোপণ করেন। ৩ বছর পর ২০১৪ সালে প্রায় ২০০ গাছে ফল আসে। প্রতিটি গাছে ২০০-৩০০ করে ফল ধরে। প্রতি মণ মাল্টা ৪ হাজার টাকায় বিক্রি হয়। অনুকূল আবহাওয়ার কারণে এবারো ভালো ফলন হয়েছে। এতে ভালো মুনাফার আশা করা হচ্ছে। এ দুই চাষীর সফলতা দেখে এলাকার আরো অনেকে মাল্টা চাষে উৎসাহী হয়েছেন।

দেখুন ভিডিওতে:

কৃষক মনমথ সরকার বলেন, ছোটবেলা থেকেই বাগানের (গাছ) প্রতি আমার দুর্বলতা ছিল। তাই চাকরি থেকে অবসর নেয়ার পর মাল্টা বাগান করার পরিকল্পনা করি। এ লক্ষ্যে পাশের গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার একটি নার্সারি থেকে চারা কিনে কলমের মাধ্যমে বাগান গড়ে তুলি। সঠিক পরিচর্যা ও অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে আমি মাল্টা চাষে সফলতা পাই। গত বছর বাগান থেকে প্রায় ৫ লাখ টাকার মাল্টা বিক্রি করেছি। বাগান পরিচর্যা, রক্ষণাবেক্ষণ, বেড়া ও সার-কীটনাশক বাবদ আমার খরচ হয়েছে ৩ লাখ।

ভালুকা-ত্রিশাল মৈত্রী কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক মাহমুদুল করিম সেলিম বলেন, মাল্টা আমদানিনির্ভর একটি ফল। দেশে বাণিজ্যিকভাবে মাল্টা চাষ হওয়ায় বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি কৃষকরা লাভবান হবেন। এ ধরনের ফল চাষে সরকারি-বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা দরকার।

ভালুকা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সাইফুল আজম খান বলেন, এ উপজেলার মাটি মাল্টা চাষের উপযোগী। এছাড়া দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে এ এলাকার অবস্থান কিছু উঁচুতে। এখানে বন্যার আশঙ্কা নেই। তাই উপজেলায় মাল্টা চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। ইতোমধ্যে ব্যক্তি উদ্যোগে কয়েকটি বাগান গড়ে উঠেছে। তাদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা ও পরামর্শ দেয়া হবে।

Share.

Leave A Reply