অভিনয়ে ব্যস্ততা বাড়ছে তানিশার

বিনোদন প্রতিবেদক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: তিনি এলেন, দেখলেন, জয় করলেন। এমনটাই বলা চলে অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী তানিশার বেলায়। দিল্লিতে পড়াশুনার পর নাড়ির টানে দেশে ফিরেন ২০১৭ সালে। আকর্ষণীয় গ্ল্যামার দিয়ে সহজেই ঠাঁই করে নেন মিডিয়ায়। অভিনয় প্রতিভার কল্যাণে একের পর কাজের অফার আসতে থাকে। গতবছরই কাজ করেছেন নির্মাতা তারেক মাহমুদের চটপটি সিনেমায়।

গায়ক হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে গ্রাম থেকে শহরে আসা যুবকের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘চটপটি’ ছবিটি। একই সঙ্গে সেখানে দেখা যাবে একজন বার ড্যান্সারের সঙ্গে এক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী যুবকের সংসারের কাহিনি। এতে তানিশাকে দেখা যাবে নিজের অফিসের বসের চরিত্রে যার কাছে হরহামেশাই লোকজন চাকরি চাইতে আসে।

ছবিটির বিভিন্ন চরিত্র অভিনয় করেছেন নীরব খান, জারা, চমক তারা, ইমরুল শাহেদ প্রমুখ। মুক্তি প্রতিক্ষীত চটপটি মূলত একটি মিউজিক্যাল ফিল্ম। সেজন্য ছবির গানগুলো আগেই ইউিটউবে রিলিজ করা হয়েছে।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ছায়ালোক মিডিয়া স্টেশনের প্রথম বাণিজ্যিক ধারার পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘চটপটি’-এর কাহিনি, চিত্রনাট্য, সংলাপ, গীত ও পরিচালনা করেছেন কবি ও অভিনেতা তারেক মাহমুদ।

এনটিভিতে প্রচারিত তানিশা অভিনীত আসাদ রহমানের টেলিফিল্ম ‘উচিত শিক্ষা’ও ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মল্লিক সুমন, তানজিনা রুবি, ফাইম আজাদ, সুমু মির্জা, রোকসানা আকতার পপি প্রমুখ।

তানিশা দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে জানান, বিগ বাজেটের একটি মুভি নিয়ে কথাবার্তা চলছে তার। শিগগিরই হয়তো দর্শকদের সুখবর দিতে পারবেন।

নরসিংদির মেয়ে তানিশার বেড়ে উঠেছেন মূলত ভারতের রাজধানী দিল্লিতে। পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ঢাকার ভিকারুন্নিসা নূন স্কুলে পড়াশোনার পর ভারতে দুই বোনের পিএইচডি’র দিল্লি পাড়ি জমান। সেখানকার খ্যাতনামা এপিজি স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। দিল্লির শ্রীরাম ভারতীয় কলাকেন্দ্র থেকে নৃত্যশিল্পে গ্র্যাজুয়েশনকালে সান্নিধ্য পান খ্যাতনামা গুরু উমাশ শর্মা’র। তার কাছ থেকে নাচের নানা খুঁটিনাটি আয়ত্ব করেছেন ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি উচ্চতার এ লাস্যময়ী অভিনেত্রী।

ব্যক্তিগত জীবনে খুবই ফ্যাশন সচেতন তানিশা। শরীরে ট্যাটো করতে খুবই ভালোবাসেন। আগ্রহ আছে ক্রিকেটের প্রতি। তার ফেসবুক ওয়ালজুড়ে দেখা গেলো বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য ও নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটারদের সঙ্গে এক ঝাঁক ছবি। দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে জানালেন, মূলত ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ থেকেই ক্রিকেটারদের সঙ্গে এমন খুনসুটি।

বাংলার পাশাপাশি হিন্দি, পাঞ্জাবি ও জার্মান ভাষায় পারদর্শী তানিশা। পরিবারের প্রায় অর্ধেক সদস্যই থাকেন দেশের বাইরে। দুই বোন ও দু্ই ভাই থাকেন অস্ট্রেলিয়ায়। এক জার্মান কূটনীতিককে বিয়ে করে সেখানেই স্থায়ী হয়েছেন আরেক বোন।

মূলত শখের বশেই মিডিয়ায় আসেন তানিশা। অভিনয় দক্ষতা দিয়ে এরইমধ্যে সেখানে নিজের জায়গাটা পোক্ত করেছেন। সবার ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে যেতে চান বহুদূর। এমন চরিত্রে অভিনয় করতে চান যা দীর্ঘ সময় ধরে মনে রাখবে দর্শক।

Share.

Leave A Reply