নারী উদ্যোক্তাদের জমজমাট ফ্যাশন শো

লাইফস্টাইল ডেস্ক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: রাজধানীর উত্তরা ক্লাবে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো জমজমাট এক ফ্যাশন শো। নারী উদ্যোক্তাদের সংগঠন ‘অনলাইন উইমেন এন্টারপ্রেনিয়ার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’ এ আয়োজনে অংশ নেন দেশসেরা আট নারী উদ্যোক্তা। আয়োজনের পুরোধা ছিলেন খ্যাতনামা ফ্যাশন ডিজাইনার নাজনীন সুলতানা রিমি।

ফ্যাশন শো’তে অংশ নেন দেশের খ্যাতনামা ২৫ মডেল। বুলবুল টুম্পার কোরিওগ্রাফিতে মিউজিকের উত্তাল বিটে তাদের ছন্দময় উপস্থিতি নজর কাড়ে দর্শকদের।

মূলত নারী উদ্যোক্তাদের ঈদ কালেকশন নিয়ে এর আয়োজন করা হয়। স্ত্রী জিনাত হাকিমকে নিয়ে এতে অংশ নেন অভিনেতা আজিজুল হাকিম। পরে অংশগ্রহণকারী ডিজাইনারদের হাতে তিনি ক্রেস্ট তুলে দেন।

জিনাত হাকিম বলেন, নারীদের সহজাত পারিবারিক ব্যস্ততা থাকে। তবে এতেই সীমাবদ্ধ নয় তারা। মানুষ ব্যবসা করে লাভের আশায়। কিন্ত একজন ডিজাইনারের পুরো কাজটা আসে তার ভেতরের শিল্পবোধ থেকে।

অনলাইন উইমেন এন্টারপ্রেনিয়ার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন খ্যাতনামা ফ্যাশন ডিজাইনার নাজনীন সুলতানা রিমি। তিনি দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে বলেন, ‘আমরা মূলত নারীদের জন্য সম্মানজনক কাজের একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে চাই। অনলাইনে যারা সততার সঙ্গে কাজ করছে ক্রেতাদের সঙ্গে তাদের একটা মেলবন্ধন তৈরি করাই এ আয়োজনের লক্ষ্য।’

নাজনীন সুলতানা রিমি দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে বলেন, ‘অনলাইন মার্কেটে সবাই নিজের প্রতিষ্ঠানকে ব্র্যান্ডিং করতে চান। তবে একইসঙ্গে এটাও নিশ্চিত করা জরুরি যে, ক্রেতা কিংবা বিক্রেতা কেউ যেন প্রতারিত না হন। আর এই প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকতে হলে সততা ও মানসম্মত পণ্যের বিকল্প নেই।’

প্রিটি লেডি বিউটি সেলুন অ্যান্ড স্পা’র সত্বাধিকারী সোনিয়া খাঁন বলেন, সত্যিকার অর্থেই এটি ছিল চমৎকার একটি ফ্যাশন শো। এর রূপসজ্জার কাজটি করতে পেরে নিজের কাছেই ভালো লাগছে।’

এ আয়োজনে অংশ নেওয়া আট ডিজাইনার হচ্ছেন নাজনীন’স ফ্যাশন হাউজের সত্বাধিকারী নাজনীন সুলতানা রিমি, গার্লস ক্লসেটের ফারজানা কাউসার, অভি’স ক্রাফটের ওয়ালিনা চৌধুরী, নাসরা’স ট্রেন্ডের জান্নাত আরা চৌধুরী, নুজহাত ফ্যাশনের রিমি এনি, এটায়ার বাই রেহনুমা’র রেহনুমা জাহান আহমেদ, আফিয়া কালেকশনের লামিয়া হোসেইন, রিভাজ ফ্যাশন বারের রিভা মাহমুদ।

মেকওভার পার্টনার ছিলেন প্রিটি লেডি বিউটি স্যালুন অ্যান্ড স্পা’র সনিয়া খান। ফটোগ্রাফি পার্টনার ছিলেন ড্রিমস ইভেন্ট ফটোগ্রাফির ফাহিম ইসলাম দ্বিপ, আহানাফ শারিয়ার জিতু ফটোগ্রাফির আহানাফ শারিয়ার জিতু এবং সাগর হিমু ফটোগ্রাফির সাগর হিমু। ইভেন্ট প্ল্যানিংয়ে ছিল দ্যা ড্রিম ওয়াকারস।

নাজনীন সুলতানা রিমি দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে জানান, নারী উদ্যোক্তাদের নিয়ে তার কাজ দীর্ঘদিনের। ২০১৮ সালের ২ ফেব্রুয়ারি ৪৯ জন উদ্যোক্তাকে নিয়ে মিলিত হয় ফ্যাশনেবল ডিভাস। ওই আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন জিনাত হাকিম। এর ধারাবাহিকতায় একই বছরের ৫ মে নিজের ফেসবুক গ্রুপ ‘ফ্যাশনঅ্যাবল ডিভাস’-এর ব্যানারে রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে একত্রিত হন তারা। মূলত সেখান থেকেই ‘অনলাইন উইমেন এন্টারপ্রেনিয়ার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’-এর পথচলা। বর্তমানে ১৯৪ জন নারী উদ্যোক্তা এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

ব্যবসার বাইরে বিভিন্ন মানবিক কাজে অংশ নেয় ‘ফ্যাশনঅ্যাবল ডিভাস’। সাধ্যমতো চেষ্টা করেন বিভিন্ন এতিমখানা ও বৃদ্ধাশ্রমের পাশে দাঁড়ানোর। ঠাণ্ডার দিনে শীতবস্ত্র নিয়ে ছুটে যান গরিব মানুষদের কাছে। চেষ্টা করেন দরিদ্র মানুষের চিকিৎসায় সাধ্য অনুযায়ী পাশে দাঁড়াতে।

Share.

Leave A Reply