৬ আশ্বিন, ১৪২৫|১০ মুহাররম, ১৪৪০|২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮|শুক্রবার, দুপুর ২:১২

শুভ জন্মদিন ড. মাসুমা চৌধুরী শীতল

নিজস্ব প্রতিবেদক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: টিভি পর্দার এক সময়ের জনপ্রিয় মুখ ডাক্তার মাসুমা চৌধুরী শীতলের জন্মদিন ১৩ মে। ১৯৯১ সালের এই দিনে তার জন্ম। শুভ জন্মদিন ড. মাসুমা চৌধুরী শীতল। শীতলের দাদাবাড়ি নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায়। নানাবাড়ি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মান্দারি ইউনিয়নে। বাবার চাকরির সুবাদে শৈশব-কৈশোরের একটা বড় অংশ কেটেছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে।

২০০৬ সালে চট্টগ্রামের বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি এবং ২০০৮ সালে এইচএসসি সম্পন্ন করেন। ২০০৯ সালে ভর্তি হন রাজধানীর বারিধারার পাইওনিয়ার ডেন্টাল কলেজে। ২০১৩ সালে ব্যাচেলর অব ডেন্টাল সার্জারি (বিডিএস) সম্পন্ন করেন। ২০১৪ সালে প্র্যাকটিস শুরু করেন ধানমন্ডি সাতমসজিদ রোডের বিকল্প ডেন্টাল ক্লিনিকে।

টিভি পর্দায় শীতলের উপস্থাপনা শুরু ২০১৩ সালে। ওই বছর বাংলাভিশনের নিয়মিত সকালের আয়োজন ‘দিন প্রতিদিন’ অনুষ্ঠানে উপস্থাপক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। ২০১৪ সালে যোগ দেন এনটিভির সান্ধ্যকালীন আয়োজন শুভ সন্ধ্যায়। একই বছর এনটিভির পাশাপাশি এসএ টিভির স্বাস্থ্য বিষয়ক একাধিক প্রোগ্রামে অ্যাংকর হিসেবে কাজ করেন। ওই সময়ে এসএ টিভির স্বাস্থ্য বিষয়ক চারটি প্রোগ্রামের মধ্যে তিনটিই উপস্থাপনা করতেন শীতল। এগুলো হচ্ছে ডিপিআরসি অ্যাডভান্স পেইন ট্রিটমেন্ট, লেজার ট্রিট আপনার সৌন্দর্য এবং স্বাস্থ্য প্রহর। তবে এ চ্যানেলে তার বড় কাজ ছিল সিঙ্গাপুরের খ্যাতনামা মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকদের স্বাস্থ্য পরামর্শ বিষয়ক অনুষ্ঠান ডক্টরস ভয়েস। দীর্ঘদিন তিনি অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করতেন। এছাড়া তার সঞ্চালনায় মাছরাঙ্গা টিভির রাঙ্গা সকাল অনুষ্ঠানটিও জনপ্রিয়তা পায়।

২০১৫ সালের ২৯ আগস্ট বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ডেন্টিস্ট শীতল। স্বামী ইরফান খন্দকার পেশায় একজন ডেন্টাল সার্জন। এছাড়া তিনি ধানমন্ডিতে অবস্থিত বিকল্প ডেন্টাল ক্লিনিকের পরিচালক।

২০১৬ সালের ১ জুন ফুটফুটে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন শীতল। ২০১৭ সালের মার্চে স্বামী-সন্তান নিয়ে পাড়ি দেন কানাডায়। সেখানে বর্তমানে ডেন্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করছেন।

শীতলের মা ফেরদৌসী বেগম পেশা গৃহিনী। বাব মতিন চৌধুরী নৌবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। বর্তমানে তিনি কুমিল্লা ইপিজেডে নাসা গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। বড় ভাই মাহাজ চৌধুরী আর্মি মেডিক্যাল কোরে চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

ঘুরতে, বন্ধুদের নিয়ে আড্ডা দিতে ভীষণ পছন্দ করেন শীতল। যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা, অপ্রয়োজনীয় গালগল্প অপছন্দ তার। ভবিষ্যতে দেশের জন্য, মানুষের জন্য গঠনমূলক কিছু করতে চান। দুনিয়ার যে প্রান্তেই থাকুন না কেন; নিজেকে একজন বাংলাদেশি হিসেবেই পরিচয় দিতে গর্ববোধ করেন শীতল।

সমৃদ্ধ এবং উন্নত এক দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেন তিনি। বিশ্বাস করেন, আমাদের সবার মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত হলেই দেশটা আরও অনেক বেশি সুন্দর হয়ে উঠবে। সেই সুন্দরের প্রতীক্ষায় দিন গুনছেন এই গুণী চিকিৎসক কাম উপস্থাপক।

জন্মদিনের পরিকল্পনা সম্পর্কে শীতল দ্য ঢাকা রিপোর্ট’কে বলন, দিনটি পরিবারের সঙ্গেই কাটানোর চেষ্টা করবো। এছাড়া, বরের সঙ্গে বাইরে বেরুনোর প্ল্যান আছে।

Share.

Leave A Reply