আমার মা

জিন্নিয়া সুলতানা:
ভোরের পাখি মা যে আমার
রোজ সকালে উঠে,
তাকে দেখে শত রঙের
বাহারি ফুল ফুটে।

নানান রকম সুবাস ছড়ায়
মায়ের নানান কাজে,
দুষ্ট ছেলে চাঁদ যে তার
লুকায় ভীষণ লাজে।

দুষ্টুমিতে মায়ের আসে
বেজায় কঠিন রাগ,
ছেলে মেয়ে সবাই ভয়ে
দৌড়ে বলে ভাগ।

তাই দেখে মা বড্ড হেসে
কাছে ডেকে নিয়ে
বলবে ওরে হতভাগা
কানটা মলে দিয়ে।

মা যেদিন আর থাকবো না রে
করবি সেদিন কী,
না বলেই হঠাৎ দেখবি
দিয়েছি ফাঁকি।

দুষ্টুমিটা বলরে পাগল
সইবে রে বল কে,
তুই যে আমার সোনা মানিক
দেখিয়ে এবার দে।

পড়ালেখায় সবার আগে
নাম লিখবি তুই
মানুষ হবি, স্বপ্ন থাকবে
আকাশ ছুঁই ছুঁই!

চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে
অন্ধকার কোনো রাত,
মনের আলোয় করবি রে তুই
করবি বাজিমাত।

সেদিন আমি বুক ফুলিয়ে
বলবো ওরে সোনা,
তোর জীবন যে কানায় কানায়
মোর ভালোবাসায় বোনা।

আনন্দে তুই মায়ের বুকে
পড়বি আবার আসি,
বলবি যে মা আগের মতোই
তোমায় ভালোবাসি।

Share.

Leave A Reply