প্রভু অনুমতি দাও

জিন্নিয়া সুলতানা:
প্রভু,
অনুমতি দাও-
আমি নষ্ট হবো, এবার পথভ্রষ্ট হবো।
এই সুন্দর ভুবনে শান্ত সুন্দর নদী
বয়ে যাওয়া সুন্দর জল,
তাই বলে কি দেখবো না
পাহাড়ের বুক ফাটা কান্নায়
ঝর্ণার পানি টলমল।

বলো বুঁদ হয়ে রবো কিসে?
ক্লান্ত দুপুরের নিঃশব্দ প্রহরে
কান পেতে শুনি
হাজারো প্রাণ চাপা স্বরে করে আর্তনাদ,
সেই স্বরের ধ্বনি প্রতিধ্বনিতে
কেঁপে উঠে সাজানো ফুলের ডালা,
শুভ্র ফুলকে আমি কি করে বাঁচাবো
লজ্জায় ঘৃণায় যদি সেও ঝরে যায়?

এর চেয়ে ভালো
প্রভু,
অনুমতি দাও,
আমিও নষ্ট হবো, এবার না হয় পাপিষ্ট হবো।
কী হবে আঁচলে ঢেকে পবিত্র মন
ওরা যদি মুহূর্তেই লেপে দেয় কালি,
শিষ্টতার খোলস ছেড়ে আদিম হলে
নির্লজ্জের মতো যারা দেয় হাততালি,
হয় ওদের ধ্বংস করো
না হয় প্রভু অনুমতি দাও
আমিই না হয় নষ্ট হবো,
তালে তাল মিলাতে না হয় আমিই পাপিষ্ট হবো।

প্রভু,
কি করে দেখি আমি
মানুষের রূপ ধরে কুকুরের জয়,
অপ্রতিরোধ্য শক্তিতে ওদের সাজাও
কেন এ অপমান কেন এত মানবতার অবক্ষয়।

তাহলে বলো মানুষ নয়
আশরাফুল মাখলুকাত,
এরা যুগে যুগে হয়ে যায় বহুরূপী দানব।
প্রাণ বাঁচাতে আমিও কি পশু হবো
নাকি মাথা উঁচু করে বলবো
আমি সৃষ্টির সেরা জীব প্রশংসিত মানব।

পাপিষ্ঠের তুমি ধ্বংস দাও
না হয় প্রভু অনুমতি দাও,
আমিও না হয় নষ্ট হবো, প্রাণ বাঁচাতে পাপিষ্ট হবো।

Share.

Leave A Reply