৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫|৬ রবিউস-সানি, ১৪৪০|১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮|শুক্রবার, সন্ধ্যা ৬:৫৮

লালন গানের শিল্পী অন্বেষণ

বিনোদন প্রতিবেদক, দ্য ঢাকা রিপোর্ট ডটকম: সাংস্কৃতিক ধারা, স্বাতন্ত্র্য সংরক্ষণ এবং নতুন প্রজম্মের কাছে লালনের ভাব-দর্শন তুলে ধরতে প্রথমবারের মতো আয়োজন করা হয়েছে রোটারি লালন উৎসব। রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিক্ট ৩২৮১, বাংলাদেশের উদ্যোগে এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উৎসবের অন্যতম বিষয় “মন চলো রূপের নগরে” শিরোনামে লালন গানের শিল্পী অন্বেষণ প্রতিযোগিতা। সারাদেশ থেকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সেরা ১০ জন লালন গানের শিল্পী খুঁজে বের করা হবে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৬ অক্টোবর চটগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো প্রথম অডিশন রাউন্ড। চট্টগ্রাম পর্বের অডিশনের উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন লালন শিল্পী ও প্রধান বিচারক ফরিদা পারভিন, দৈনিক পুর্বকোন সম্পাদক জসীম উদ্দিন চৌধুরী, বিচারক আকরামুল ইসলাম ও ড. আবু ইসহাক হোসেন। লালন উৎসব কেন্দ্রীয় কমিটিরর পক্ষে রোটারিয়ান পিপি শাখাওয়াত হোসাইন ভুইয়া, রোটারিয়ান পিপি রেজাউর রহমান সিনহা, রোটারিয়ান সুমন রহমান ও প্রোগ্রাম সেক্রেটারি রোটারিয়ান সাজেদুল হক ভুঁইয়া পলাশ।

উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম পর্বের অডিশন রাউন্ডের চেয়ার পিপি আমিন সোহেল ও স্বাগতিক রোটারি ক্লাব অব চিটাগং সাগরিকার নেতৃবৃন্দ। চট্টগ্রাম অডিশন পর্ব থেকে ঢাকায় সিলেকশন পর্বের জন্য সরাসরি নির্বাচিত হন তিনজন সম্ভাবনাময় লালন শিল্পী। তারা হচ্ছেন – সুমাইয়া ইসলাম চৌধুরী, ইমন শীল ও হালিমা আক্তার। এছাড়া দুজনকে রাখা হয়েছে অপেক্ষমান তালিকায়।

৯ নভেম্বর রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত অডিশন পর্ব থেকে ঢাকায় সিলেকশন পর্বের জন্য সরাসরি নির্বাচিত হন চারজন সম্ভাবনাময় লালন শিল্পী। একজনকে রাখা হয়েছে অপেক্ষমান তালিকায়। রাজশাহীর আয়োজনে অংশ নেন ১৪৯ জন প্রতিযোগী। আগামী ১৬ নভেম্বর সিলেটে, ২৩ নভেম্বর কুষ্টিয়ায়, ৩০ নভেম্বর ময়মনসিংহে ও ৭ ডিসেম্বর ঢাকায় অডিশন রাউন্ড অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সী যে কোন নারী-পুরুষ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। অনলাইন রেজিষ্ট্রেশন এর জন্য www.rotarylalonutsab.com এই ওয়েব ঠিকানায় ভিজিট করতে হবে।

রেজিস্ট্রেশনের নিয়মাবলী:

প্রতিযোগীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। বয়স ১৮ থেকে ৩৫ বছর যে কোন নারী-পুরুষ। (বয়স ও জাতীয়তার স্বপক্ষে জাতীয় পরিচয় পত্র/ পাসপোর্ট/ জন্ম সনদ এর যে কোন একটি থাকতে হবে। যথাযথভাবে ছবিসহ ফর্ম পুরণ করতে হবে। ফর্ম পুরনের পরে অংশগ্রহণের পরিচয়পত্রটির প্রিন্ট কপি প্রতিযোগিতার দিন সাথে আনতে হবে। উৎসব কর্তৃপক্ষ চাইলে যে কোন প্রতিযোগিকে অযোগ্য ঘোষনা করতে পারবেন।

রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিক্ট ৩২৮১ এর গভর্নর আবুল ফজল মোহাম্মদ আলমগীরের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই উৎসবের প্রধান উপদেষ্টা প্রাক্তন রোটারি জেলা গভর্নর ও মুস্তাফা জামান আব্বাসী। উৎসব প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন রোটারিয়ান পিপি সাইফুল ইসলাম শামীম। বিচারক হিসেবে থাকছেন ফরিদা পারভীন, আকরামুল ইসলাম ও ড. আবু ইসহাক হোসেন।

Share.

Leave A Reply