Bangladesh News Network
Bongosoft Ltd.
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট, ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

লালন করে বিয়ে পর্যন্ত দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর

দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ডিসেম্বর ১৭, ২০২১, ১০:২৬ পিএম লালন করে বিয়ে পর্যন্ত দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর

রাজনীতি কোন পেশা না। রাজনীতি একটি সেবামূলক কার্যক্রম। দেশের জন্য ও দেশের মানুষের জন্যই রাজনীতি। যেখানে ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে একজন মানুষ আরেকজ মানুষের পাশে দাঁড়াবে। আর সেই দৃষ্টান্তই স্থাপন করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম।

শহরের পশ্চিম দেওভোগ এলাকায় বাবা হারানো সনাতন ধর্মাবলম্বী এক অসহায় শিশুকে ছোট থেকে বড় করে জমকালো আয়োজন করে বিয়ে করিয়েছেন। নতুন ভাবে জীবন যাপনের জন্য সার্বিক সহযোগিতা করেছেন জাহাঙ্গীর আলম। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।

১৫ ডিসেম্বর বুধবার দুপুরে ওই বিয়ের বৌভাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এসময় তিনি বর ও কনেকে দোয়া করেন।

বর হলেন পশ্চিম দেওভোগ এলাকার মৃত ননী গোপাল রায়ের ছেলে সবুজ রায় আর কনে হলেন বিক্রমপুর হাসাইল এলাকার দীপ্তি দাস।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘সবুজের বয়স যখন ৭ বছর তখন তার বাবা অসুস্থ হয়ে মারা যায়। তারপর থেকেই পিতৃহীন একটি শিশু অসহায় হয়ে পরে। তারপর থেকে আমরা তাকে লালন পালন করে বড় করে তুলেছি। এখন আমার ভাতিজার দোকানে চাকরি করে। মাকে নিয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করছে।’

তিনি বলেন, ‘ছোট শিশু সবুজ এখন বড় হয়েছে। নতুন করে জীবন শুরু করা প্রয়োজন। তাই আমরা নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে বিক্রমপুর হাসাইল এলাকায় বিয়ে ঠিক করি। গত ১৩ ডিসেম্বর সনাতন ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে সবুজের বিয়ে করানো হয়। আজকে বৌভাতের আয়োজন করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘নিজের ছেলের বিয়েতে যেমন আনন্দ ও আয়োজন করা হয় ঠিক তেমন ভবেই সব কিছু করা হয়েছে। গায়ে হলুদে কনসার্ট, সাউন্ড সিস্টেম ও শিল্পী এসে আনন্দ করেছি। বিয়ের দিন আমার পরিবারের সবাই বরযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছে। আজকে নিজেরাই আয়োজন করে বৌভাত করছি।’

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘রাজনীতি কোন পেশা না। আমরা মানুষের জন্য কাজ করি। এটা তারই অংশ। আমরা সব সময় মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই। তাতে হিন্দু মুসলিম কোন ভেদাভেদ নাই।’

Side banner